• রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৯ অপরাহ্ন

কচুয়া সহদেবপুর ইউপিকে মাদকমুক্ত গড়ে তুলতে চাই চেয়ারম্যান প্রার্থী মোস্তফা কামাল

আপডেটঃ : শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০

জিসান আহমেদ নান্নু,কচুয়া ॥
কচুয়া উপজেলার ৫নং পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রত্যাশী মো: মোস্তফা কামাল। তিনি বর্তমানে (প্রস্তাবিত) কচুয়া উপজেলা যুবদলের কার্যনির্বাহী সদস্য। সাবেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক পালাখাল রোস্তম আলী ডিগ্রি কলেজ শাখা ছাত্রদল ও পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়ন ছাত্রদল। তার পিতা মো: আব্দুর সাত্তার প্রধান। সেঙ্গুয়া গ্রামে এক পল্লী নিভৃতে তিনি জন্মগ্রহন করেন।
ছাত্র রাজনীতি শেষ করে কর্মের তাগিদে চলে আসেন রাজধানী ঢাকায়। নিজ বুদ্ধিমত্তা ও কর্ম দক্ষমতায় অনেক কষ্টের বিনিময়ে একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। বর্তমানে বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের পাশাপাশি ইউনিয়ন বাসীর সেবা করতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চান তিনি। সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তরুন ব্যবসায়ী মো: মোস্তফা কামাল জানান, এলাকাবাসী তথা আমার প্রানপ্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি চাইলে ইউনিয়নকে পরিবর্তনের লক্ষ্যে আমি চেয়ারম্যান পদে লড়তে চাই। এ লক্ষ্যে বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে এলাকায় বিভিন্ন ভাবে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি। আমার বিশ^াস এলাকাবাসী আমাকে তাদের মূল্যবান রায়ের মাধ্যমে ৫নং পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবেন। এ উপলক্ষ্যে তিনি গতকাল শনিবার স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে তার দীর্ঘদিনের জমানো ইউনিয়নবাসীকে নিয়ে স্বপ্নের কথা তুলে ধরেন খোলামেলা আলোচনার মাধ্যমে।
এক প্রশ্নের জবাবে তরুন ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মো: মোস্তফা কামাল বলেন, ছাত্র জীবন থেকেই একটি দলের আদর্শ ও উদ্দেশ্য মনে প্রানে লালন করে আসছি। রাজনীতির বাইরে মানুষের কিছু স্বপ্ন থাকে। আর সেই স্বপ্নটি হলো একজন জনপ্রতিনিধি হওয়া। জনপ্রতিনিধি না হয়েও এলাকার সাধারন মানুষের সেবা করা যায়। কিন্তু জনপ্রতিনিধি হলো একটি সম্মানের জায়গা। এর মাধ্যমে এলাকার উন্নয়ন তথা মানুষের সুখ দু:খে পাশে থাকা যায়।
তিনি বলেন, আমি ছোট বেলা থেকেই নিজে অন্যায় করি না এবং কোনো অন্যায় কাজে সমর্থন দেই না। এক কথায় ছোট বেলা থেকে প্রতিবাদী ছিলাম এখনো আছি। এলাকার উন্নয়নে বরাবরে বিগত দিনেও ছিলাম ভবিষ্যতেও থাকব। আমার প্রানপ্রিয় ৫নং পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়ন বাসীর সহযোগীতায় ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে ধনী গরীবের ভেদাভেদ ভুলে, একটি সুন্দর সমাজ প্রতিষ্ঠা করব। বিশেষ করে প্রতিবন্ধী,বেকার যুবক-যুবতীদের ছোট ছোট কুটির শিল্পের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা,মাদক,বাল্যবিবাহ,ইভটিজিং,সামাজিক অপরাধ দমন করে একটি যুযোপযোগী মডেল ইউনিয়ন গড়ে তুলবো।
তিনি আরো বলেন, নির্বাচন আসলে অনেকেই নানান প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু নির্বাচিত হলে প্রতিশ্রুতি ভুলে যান। কথা দিলাম প্রকৃত সেবক হিসেবে কাজ করব। শোষক নয়,সেবক হতে চাই। বিগত দিনে মানুষের রয়েছি মানব সেবা করার জন্যই প্রার্থী হবো।
৫নং পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদের ইতিহাসে আমি নিজে একজন ব্যতিক্রম উদাহরণ হতে চাই। মানুষ আজীবন বাঁচবে না। এমন কিছু করতে চাই যাতে মানুষ যুগযুগ ধরে আমাকে শ্রদ্ধা ও সম্মানের সাথে মনে রাখে। এসব স্বপ্ন পূরনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মো: মোস্তফা কামাল দলীয় নেতাকর্মী তথা ইউনিয়নবাসীর সহযোগিতা ও দোয়া চেয়েছেন।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…