• শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৪০ অপরাহ্ন

হাজীগঞ্জে কেরোসিনের আগুনে পুড়ে মাদরাসার ছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আপডেটঃ : রবিবার, ১২ জানুয়ারি, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে গায়ে কেরোসিন ঢেলে মাদরাসা ছাত্রী আত্মহত্যার চেস্টা করেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে প্রথমে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আহত ছাত্রী সিপা (১৭) উপজেলার বড়কুল পূর্ব ইউনিয়নের কাইজাঙ্গা গ্রামের প্রবাসি দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে। সে হাজীগঞ্জ দারুল উলুম আহমাদিয়া কামিল মাদরাসার ১০ শ্রেণির শিক্ষার্থী। শনিবার বিকেলে পৌরসভাধীন ৫নং ওয়ার্ডের ট্রাকরোডে এ ঘটনা ঘটে।

সিপা’র চাচা জানায়, মাদরাসা থেকে এসেই গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়ার কথা শুনেছি। তাকে বকা ঝকা করায় রাগ করে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন রনি জানান, ঘটনাটি শোনার সাথে সাথে আমি নিজেই হাসপাতালে গিয়েছি। আগুনে শিক্ষার্থীর প্রায় ৭০ ভাগ পুড়ে গেছে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার জানান, আগুনে মেয়েটির শরীরটি প্রায় পুড়ে গেছে। বাঁচার কোন লক্ষণ নেই। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কুমিল্লা প্রেরণ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিপার মা শিল্পীর মুঠো ফোনে কয়েকবার ফোন করা হলেও ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে তার এক নিকট আত্মীয় জানান শিল্পী তার মেয়েকে নিয়ে কুমিল্লা হাসপাতালে রয়েছে। ফোনে চার্জ না থাকায় বন্ধ রয়েছে।

তিনি জানান, যদ্দুর জানতে পেরেছি, মেয়েটি হাজীগঞ্জ আলিয়া মাদরাসায় লেখা-পড়া করে। লেখা-পড়ার প্রতি অমনোযোগি। মাদরাসা ছুটি হলেও অনেক দেরী করে বাসায় ফিরে। মোবাইলে কোন ছেলের সাথে কথা বলে। এসব বিষয় নিয়ে তার মা বকা দেয়ায় সে ঘরে থাকা কেরোসিন তৈল গায়ে ঢেলে আত্মহত্যার চেস্টা করে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…