• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

মতলবে ভুল চিকিৎসায় প্রান গেল সাংবাদিক সফিকুল ইসলাম রিংকুর মায়ের !! দাফন সম্পন্ন

আপডেটঃ : রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

 

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
মতলব দক্ষিন উপজেলার  পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড মধ্য কলাদীর বাসিন্দা মৃত আলহাজ্ব রফিকুল ইসলামের স্ত্রী ও মতলব উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি সাংবাদিক সফিকুল ইসলাম রিংকুর মাতা সুফিয়া ইসলাম (৫০) গত ১৩ ফেব্রুয়ারী ভোর ৩ টার সময় ঢাকাস্হ পিপলস্ হাসপাতালে শেষ নিশ্বাষ ত্যাগ করেন।

ইন্না… ……….. রাজিউন ।

মৃত্যু কালে তিনি ১ ছেলে ১ মেয়েসহ অসংখ্য আত্বিয় স্বজন গুনাগ্রাহী রেখে গেছেন । পরে বাদ জোহর মতলব শাহী জামে মসজিদে নামাজের জানাযা শেষে হজ্বিডোন কবরস্হানে স্বামির কবরের পাশে সমাহিত করা হয় । মরহুমার বিদেহী আত্ব্যার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করেন তার পরিবার ।

উল্লেক্ষ মরহুমা সুফিয়া ইসলাম দির্ঘদিন যাবত শ্বাষকষ্ট (এজমা) জনিত রোগে ভূগছিলেন কিছু দিন আগে পায়ে ব্যাথা অনুভব করছিল তাই গত ১১ ফেব্রুয়ারী সকালে ব্যাথা বেড়ে যায় তখন ডঃ মহিবুর রহমান শাহদাত এমবিবিএস মেডিসিনকে খবর দিলে তিনি বাসায় এসে রোগি দেখার পর তাকে ভোলটারিন ইনজেকশন পুস করেন যা কিনা শ্বাষকষ্ট রোগির জন্য বিপদ জনক। ইনজেকশন পুস করার কিছুক্ষন পরেই রোগির অবস্হা অবউন্নতি হতে থাকলে তাকে ঢাকার মালিবাগে পিপলস্ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ১৩ ফেব্রুয়ারী ভোর ৩ টার সময় চিকিৎসাধীন অবস্হায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে ।

ঢাকা থেকে মরহুুমার মৃতদেহ সকাল ১০ নিজ বাড়ীতে পৌছলে এলাকার শত শত নারী পুরুষ আত্বীয় স্বজন ছোটে আসে শেষ দেখা দেখার জন্য এ সময় আসে শাপের পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে।

মরহুমার ছেলে সফিকুল ইসলাম রিংকু অভিযোগ করে বলেন, আমার মায়ের শ্বাষকষ্ট ছিল পায়ের ব্যাথার জন্য ডাক্তারকে খবর দেই তিনি দির্ঘদিন যাবত আমার মায়ের চিকিৎসা করে আসছেন । তার ভুল চিকিৎসার কারনে আমর মায়ের মৃত্যু হয় । এমন ভুল চিকিৎসার জন্য আমার মায়ের মত আর জেন কারো মৃত্যু না হয় আমি তার শাস্তি কামনা করছি।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…