• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণে পরীক্ষা কেন্দ্রে অসাধু উপায় অবলম্বনের অভিযোগ

আপডেটঃ : বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯

স্টাফ রিপোর্টারঃ
চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়ের পিএসসি’র পরীক্ষা কেন্দ্রে মজিবুর রহমান রুবেল নামে এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে অসাধু উপায় অবলম্বনের অভিযোগ উঠেছে । যা নিয়ে ওই কেন্দ্রে অংশ নেওয়া অন্যান্য শিক্ষার্থীর অভিভাবকরা অসন্তোষ প্রকাশ করেছে ।
এতে পরীক্ষায় সুষ্ঠু পরিবেশে পরীক্ষা দিতে মেধাবী ছাত্রদের বিগ্ন ঘটছে বলেও কতিপয় অভিভাবকরা অভিযোগ তুলেন। অভিযোগে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন অভিভাবক জানান,মজিবুর রহমান রুবেল এই শাহাজালাল উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্ণিং বডির মেম্বার এবং পশ্চিম পিংড়া’রও (১৫০০ বিদ্যালয়) সভাপতি । আবার পশ্চিম পিংড়া স্কুলের পিএসসির ১১ শিক্ষার্থী পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রও শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়।তাই শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়ের গভর্ণিং বডির মেম্বার হওয়ার সুবাধে প্রভাব বিস্তার করে রুবেল ওই পরীক্ষা কেন্দ্রে অফিসগত কাজের কথা বলে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে ঢুকে।
আর তখনই ওই শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দপ্তরি মুসলিম ও হলের দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষককে দিয়ে অসাধুউপায় অবলম্বন করে তার পশ্চিম পিংড়া’র(১৫০০ বিদ্যালয়) শিক্ষার্থীদের সাহায্য সহযোগিতা করে।তবে এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবী করে মজিবুর রহমান রুবেল বলেন,এসব অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।একটি মহল আমাকে বিপদগ্রস্থ করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে।আমি পরীক্ষা কেন্দ্রে কোন অসাধু উপায় অবলম্বন করনি ।
আমি অফিসগত কাজে কেন্দ্রে গেয়েছি।যদি এটি অপরাধ হয় তাহলে আর পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে কেন্দ্রে যাবো না । এদিকে ২০ নভেম্বর বুধবার প্রাথমিক বিজ্ঞান পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে সরজমিনে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ ঘুরে এসব অভিযোগের বিষয়ে কথা হয় হযরত শাহজালাল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ নাসির উদ্দিন তপাদারের সাথে।
তিনি জানালেন,এই কেন্দ্রে মোট ১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ৩’শ ৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। যাদেরকে কেন্দ্রের মোট ৬ হলে পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হয়েছে।তাদের জন্য হল প্রতি ২ জন করে মোট ১২ জন কক্ষ পরিদর্শক রাখা হয়েছে । এর বাইরে বহিরাগত কাউকেই আমরা পরীক্ষার হলে প্রবেশ করতে দেই না ।
এদিকে কেন্দ্রের কক্ষ পরিদর্শকদের তথ্য চাইলে এ সময় তিনি সাংবাদিকদের নানান প্রশ্ন শুরু করে সাংবাদিকের পেশাগত দায়িত্বে ব্যাঘাত ঘটাতে চেষ্টা করেন। অবশ্য পরে ওই কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এলজিইডির উপ-সহকারী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়ার মধ্যস্থায় সে তথ্য তিনি পরবর্তীতে উপস্থিত সাংবাদিকদের দিতে সম্মতি দেন।এ সময় কেন্দ্রের হল সুপার মোঃ কামরুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…