• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩২ পূর্বাহ্ন

মতলব নায়েরগাঁও বাজারে দূধর্ষ ডাকাতি !! আটক ৫

আপডেটঃ : রবিবার, ৪ আগস্ট, ২০১৯

 

সফিকুল ইসলাম রিংকু :

মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও বাজারে বুধবার গভীর রাতে ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে। ডাকাতদল বাজারের ৪টি স্বর্ণ দোকানের আনুমানিক ৬ ভরি স্বর্ণালঙ্কার সহ নগদ আড়াই লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতের প্রহারে বাজারের গার্ডসহ ১১জন আহত হয়। পুলিশ সন্দেহজনক ভাবে ৫ ব্যক্তিকে আটক করেছে।

পুলিশ ও বাজারের ব্যবসায়ীরা জানায়, ওই রাতে আনুমানিক ১টা থেকে ২টার মধ্যে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল বাজারের ৬জন নাইট গার্ড, ২জন সুপার ভাইজার, দোকানের ৪জন কর্মচারি এবং ১ জন দোকান মালিককে বাজারের পুর্ব পাশে সূখরঞ্জনের কলার দোকানে হাত-পা বেঁধে রেখে ডাকাতি করে।

জানা যায়,নায়েরগাঁও মধ্য বাজারের পলী স্বর্ণা শিল্পালয়ের ৩ ভরি স্বর্নালংকারসহ নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা , রঞ্জিত শিল্পালয়ের ১৫ ভরি রুপা, ভাই-ভাই শিল্পালয়ের দেড় ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও পূর্ব বাজারের মা স্বর্ণালয়ের দেড় ভরি স্বর্ণালঙ্কার ডাকাত দল নিয়ে যায়।

ভাই ভাই শিল্পালয়ের মালিক অজয় বণিক ও রিপন বণিক বলেন, বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিটন পাল রাত প্রায় ৩টার সময় আমাকে ফোন দিয়ে এ বিষয়টি জানান। এ ছাড়া মা স্বর্ণালয়ের মালেক মোঃ সবুজ মিয়া বলেন, আমার দোকানের কর্মচারী কাকন একই সময়ে ডাকাতির বিষয়টি আমাকে জানায়।

ঘটনার দিন রাতে ৭জন গার্ডের মধ্যে একজন এবং দুই সুপারভাজারের মধ্যে এক জন অনুপস্থিত ছিলেন। সে রাতে বাজার এলাকায় পুলিশের পেট্রল ডিউটির দায়িত্বে ছিলেন এএসআই প্রশান্ত কুমার দাস।

বাজার কমিটির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমাকে সকাল সাড়ে ছয়টায় কমিটির সাধারণ সম্পাদক লিটন কুমার পাল বাজারে ডাকাতির ঘটনাটি জানায়, আমি সকাল ৮টার দিকে বাজারে গেলে ঘটনাটি আশ্চার্যজনক মনে হয়। বাজারের গার্ড ও সুপারভাইজারদের দায়িত্বে আছেন বাজার কমিটির সেক্রেটারী লিটন পাল। ডাকাতির বিষয়ে জানতে, লিটন পালকে বাজারে ও মুঠোফোনে পাওয়া যায়নি।

মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইন-র্চাজ একেএমএস ইকবাল হোসেন ডাকাতির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঐ রাতে নায়েরগাঁও বাজারে ডাকাতি সংঘঠিত হয়েছে । আমিসহ ডিবি পুলিশের কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছি। এ সময় বাজারের ৪ জন গার্ড এবং ১জন দোকান কর্মচারিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…