• শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন

ফরিদগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনায় শিক্ষক পরিবারের ওপর হামলায় আহত ২

আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ১৬ মার্চ, ২০২১

স্টাফ রির্পোটার:
ফরিদগঞ্জে এক মাধ্যমিক স্কুল প্রধান শিক্ষকের পরিবারের ওপর অজানা কারনে হামলা। ঘটনার ভিডিও চিত্র ধারণ করতে গিয়ে আহত হয়েছে ওই স্কুলের এমপিওভুক্ত নৈশ্য প্রহরী শামিম হোসেন বেপারি। খবর শুনারপর বাড়ীতে এসে হামলাকারীদের হাতে আহত হয়েছেন ওই শিক্ষক নিজেই। এঘটনায় ফরিদগঞ্জ থানায় বিচার প্রার্থনা করে হামলাকারী ৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন অসহায় পরিবারটি। ঘটনা ধামাচাপা দিতে প্রভাবশালী একটি চক্র ভুক্তভোগী পরিবারকে হুমকি ধমকি দিচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
সোমবার (১৫ মার্চ) বেলা সাড়ে ১২ টায় পূর্ব বড়ালী শাহজাহান কবির উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারীর নিজস্ব বাস ভবনে এ ঘটনা ঘটে।
থানায় লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয়দের থেকে পাওয়া তথ্য সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৩ খ্রি. নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারী ভাটিরগাঁও সড়কের পাশে নালের জমি ক্রয় করে এখানে মাটি সংগ্রহ করে বিটে বাড়ি নির্মাণ করেন। পরবর্তিতে বাড়ির আঙ্গিনায় ফলজ বৃক্ষসহ নানা রকমের বৃক্ষ রোপণ করেন। নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারীর নির্মানকৃত বাড়ির পূর্ব পাশে অভিযুক্তদের মধ্যে নুরুন্নবীদের সম্পত্তি ছিলো, তারা ওই সম্পত্তি বিক্রি করেন দেলোয়ার হোসেন গংদের কাছে। পরবর্তিতে একই জমি অভিযুক্ত দুলাল গং ক্রয় করেন। ঘটনার দিন নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারী বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় কাজে জেলা শহর চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে যান, এ সুযোগে অভিযুক্তরা দলবল নিয়ে এসে নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারীর রোপণকৃত নারিকেল গাছের নারিকেল নিয়ে যাওয়ার সময় নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারীর স্ত্রী অভিযুক্তদের বাধা প্রদান করলে অভিযুক্তরা তাদের মারার জন্য তেড়ে আসে। এসময় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে খবর পেয়ে নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারীর কর্মরত পাশ^বর্তী স্কুলে নৈশ্যপ্রহরি শামিম বেপারীকে দেখার জন্য বাড়িতে পাঠিয়েছেন। শামিম বেপারীসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষকগন ঘটনার স্থানে গিয়ে ওই ঘটনার ভিডিও চিত্র ধারন করতে গেলে হামলাকারীরা শামিম বেপারির মোবাইল ফোন ও সঙ্গে থাকা নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নেছার আহাম্মেদ পাটওয়ারী দ্রুত ঘটনার স্থানে আসারপর তিনি নিজেও এ হামলার শিকার হয়েছেন। হামলাকারীরা মোবাইল ফোন,নগদ টাকাসহ প্রায় লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করেছে বলে জানা গেছে। ভুক্তভোগী পরিবারটি ঘটনার দিনই মো.সাইফুল ইসলাম, মো. নুরুন্নবী, দুলাল মিয়া, মো. নাছির ও মো. নাহিদসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫ জনকে অভিযুক্ত করে ফরিদগঞ্জ খানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এর পূর্বেও গত ভক্তভোগী ওই শিক্ষকের বাড়িতে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে ওই পরিবারের ওপর আবারও হামলার আশংকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।
এদিকে শিক্ষক পরিবারের ওপর হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে, সঠিক তদন্ত ও অপরাধীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবী জানিয়েছে শিক্ষক মহল।
থানায় বিচার প্রার্থনাকারী নেছার আহাম্মেদ জানিয়েছেন, আমি পূর্ব বড়ালী শাহজাহান কবির উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মরত। আমার বসতবাড়ীটি রাস্তার পাশে হওয়াতে অভিযুক্তরা বিভিন্ন সময় আমার বাড়ীতে পরিকল্পিত হামলা চালায়। গত কয়েকমাস পূর্বেও আমার বাড়িতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে। তখনো আমি প্রশাসনের কাছে লিখিত ভাবে বিচার চেয়েছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি বেশ কয়েকবছর পূর্বে এখানে বসতবাড়ী করে বসবাস করে আসছি।তারা কি কারনে আমার সাথে শত্রুতা করে আসছে আমার বোধগম্য নয়। আমি প্রশাসনের কাছে বিচার চাই।
ঘটনার বিষয়ে অভিযুক্তদের সাথে আলাপ করলে তারা জানান, আমরা নারিকেল পারার সময় তারা এসে ভিডিও ধারণ করেছে, তাই এঘটনা ঘটেছে।
এবিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ শহীদ হোসেন জানিয়েছেন, ঘটনার স্থানে পুলিশ পাঠিয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…