চাঁদপুর প্রতিনিধিঃ

চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের খেরুদিয়া গ্রামে নবম শ্রেনীর এক ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে। এই ঘটনায় স্থানীয়রা ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত রহিম খান (২৩) নামে একজনকে আটক করে চেয়ারম্যানের নিকট হস্তান্তর করেছে।

শনিবার (৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ওই গ্রামের প্রধানিয়া বাড়ীর বাগানে সংঘবদ্ধ লম্পটরা এই ঘটনা ঘটায়।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামের জনৈক ব্যাক্তির পালিত কন্যা ও নবম শ্রেনীর ছাত্রীকে সন্ধ্যায় পাটি তৈরীর বেতি আনতে গেলে শামীম প্রধানিয়া নামে যুবক মুখ চাপা দিয়ে বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে শামীম, শাহাদাত গাজী ও রহিমখান স্কুল ছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। মেয়েটি যন্ত্রণায় চটপট করতে থাকে। এক সময় চিৎকার দিলে স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। এরই মধ্যে স্থানীয় লোকজন রহিম খান আটক করতে পারলেও বাকী দুইজন পালিয়ে যায়।

স্থানীয় বাসিন্দা হাসান গাজী জানান, ঘটনার পর ওই মেয়েটির পিতাসহ স্থানীয় লোকজন বিষয়টি প্রথমে স্থানীয় চেয়ারম্যান শামীম খানকে অবগত করেন। এরপরে তারা সরাসারি মেয়েটিকে নিয়ে থানায় চলে আসেন। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এদিকে ধর্ষণের শিকার ওই স্কুল ছাত্রী জানায়, তাকে ধর্ষণ করার সময় তারা মোবাইলে ভিডিও ধারণ করেছে।

চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন বলেন, ঘটনাটি আমরা জেনেছি। স্কুল ছাত্রীসহ তার পরিবারের লোকজন এসেছে। ঘটনাটি আমরা তদন্ত করে দেখছি এবং মেডিকেল করার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হবে।

Share This post