শাহরাস্তি প্রতিনিধি:
চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে সড়ক দুর্ঘটনায় চাঁদপুর গামী যাত্রীবাহী বোগদাদ বাস কুমিল্লা মেট্রো ব ১১-০০৮৪ বাসটি শাহরাস্তি উপজেলার মৌতাবাড়ি ব্রিজ সংলগ্ন দ্রুতগতিতে আশা নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বোগদাদ বাসটি উল্টে খালে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে ২ মহিলা যাত্রী নিহত হন। আরো ৩০ জন যাত্রী আহত হয়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।
সোমবার ৮ ফেব্রুয়ারি বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক সড়কের মৌতাবাড়ী নামক স্থানে এ দূর্ঘটনা ঘটে। বাসটিতে প্রায় অর্ধশত যাত্রী ছিল। খবর পেয়ে শাহরাস্তি ফায়ার সার্ভিস, শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল মান্নান ও ফোর্স, ট্রাফিক পুলিশ ইনচার্জ মোঃ কবির হোসেন, শাহরাস্তি পৌর মেয়র প্রার্থী হাজী আব্দুল লতিফ, চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিকশা মালিক সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন মজুমদার, হাজিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস সহ বিভিন্ন ডিফেন্সের বাহিনী ও সাধারণ জনগণ উদ্ধারের কাজ করছেন। নিহতরা হলেন। শহরাস্তি পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড নাওড়া গ্রামের হোমিও ডাক্তার মৃত রণজিৎ দাসের স্ত্রী ও চাঁদপুর হোমিও প্যাথিক কলেজের ডাক্তার প্রভ্রাংসু বিমল দাস সুমনের মা, দীবা রানী (৬৫) এবং কুমিল্লা জেলার নিমসার বুড়িচং উপজেলার হালগাও গ্রামের মৃত সুবল চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রী গীতা রানী ভৌমিক (৬২)। নিহত দুই জন একে অপরের নিকট আত্মীয়, তারা শাহরাস্তির কালিয়াপাড়া হতে ওই বোগদাদে উঠেন। এছাড়াও আহতরা হলেন সুচিপাড়া গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে আব্দুল মান্নান, মেহের দক্ষিণ ইউনিয়নের দেবকরা গ্রামের আরিফ হোসেন এর মেয়ে আয়েশা আক্তার, একই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী রাবেয়া আক্তারসহ ২৫ জন যাত্রী আহত হয়েছেন পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কুমিল্লা থেকে চাঁদপুর অভিমুখী বোগদাদ সার্ভিসের একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পার্শ্ববর্তী খাদে পড়ে ঘটনাস্থলেই দুই মহিলা যাত্রী নিহত হয়। এ ঘটনায় আরও ২৮ যাত্রী আহত হয়েছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ, শাহরাস্তি ও কচুয়া ফায়ার সার্ভিস দুর্ঘটনা কবলিত যাত্রীদের উদ্ধার করে কচুয়া, শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ আশাপাশের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করে। নিহতদের লাশ শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে।
শাহরাস্তি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবদুল মান্নান বলেন, দূর্ঘটনায় দুই মহিলা ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। পুলিশ ও দমকল বাহিনী উদ্ধার অভিযানে ঘটনাস্থলে রয়েছে। শাহরাস্তি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শিরীন আক্তার ও পৌর মেয়র হাজী আঃ লতিফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

Share This post