মানবখবর ডেস্ক:

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর রাজবাড়ী বাজারে একটি টিনের ঘরে ১৭ ও ১৮ বছর বয়সি দুই তরুণী দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় তাদের একজনের সঙ্গে সম্পর্ক থাকা এক যুবকসহ নয়জন জড়িত ছিল। এখন পর্যন্ত ওই যুবকসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শনিবার (৮ মে) রাতে ঢাকা রেঞ্জের কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহবুদ্দিন কবির এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ভুক্তভোগী দুই তরুণীকে শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।। দুই তরুণীর মাঝে একজনের সঙ্গে আশিক নামে এক যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিছুদিন ধরেই তাদের সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছিল। শুক্রবার রাত ৮টার দিকে আশিক ওই তরুণীকে ‘সম্পর্কের ফয়সালা’ করার জন্য ডেকে আনেন। ওই তরুণী এক বান্ধবীকে নিয়ে আশিকের সঙ্গে দেখা করতে যান। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পর দুই তরুণীকে টিনের ওই ঘরে নিয়ে যান আশিক। সেখানে আশিকসহ তার বন্ধুরা দুই তরুণীকে ধর্ষণ করে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, ঘটনার পর ওই দুই তরুণী তাদের একজনের খালার বাসায় যান। কান্নাকাটির পর খালাকে ঘটনার কথা বললে রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাদের খালা ও এক মামা ফোন করে পুুলিশকে ঘটনাটি জানান। এরপর পুলিশ গিয়ে ভুক্তভোগী দুই তরুণীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। প্রাথমিক তদন্ত শেষে পুলিশ শুক্রবার রাত থেকে অভিযান চালিয়ে মূল আসামি আশিকসহ চারজনকে আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চারজনই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। এ ঘটনার সঙ্গে নয়জন জড়িত থাকার কথা জানা গেছে। এর মধ্যে দুজনকে ওই দুই তরুণী চেনে না। বাকি সাতজনের নাম বলেছে তারা।ঘটনার তদন্ত চলছে। আটক চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে বাকিদেরও আটক করা হবে।

ভুক্তভোগী তরুণীদের একজনের খালা বলেন, ‘আশিক নামের এক ছেলের সঙ্গে আমার ভাগনির প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তবে তাদের ব্রেকআপ হয়ে যায়। কিন্তু শুক্রবার ওই ছেলের সঙ্গে দেখা করতে গেলে তার বন্ধুসহ নয়জনে তাদের ধর্ষণ করে।’

শনিবার কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় নয়জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Share This post