গাজী মমিন, (চাঁদপুর) ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি:
দেশের কৃষিখাতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে শস্যভান্ডার খ্যাত চাঁদপুর জেলা। এরই ধারাবাহিকতায় এ অঞ্চলের মাটিতে চাষ হচ্ছে নানান ধরণের কৃষিপন্ন। যার একটি অংশ দখল করেছে বোরো ধান চাষ। এবারে বোরো ধানকে ঘিরে মাঠ গুলোতে দোল খাচ্ছে প্রান্তিক কৃষকের সোনালী স্বপ্ন। এ বছরে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বোরো ধানের বাম্পার ফলনের আশা করছেন ফরিদগঞ্জ উপজেলার প্রান্তিক চাষীরা।
উপজেলার খাজুরিয়া, রূপসা, বাটেরহুদ, কমলকান্ডি, বড়ালীর মাঠগুলোতে যেন সবুজের সমারোহ। আদিগন্ত মাঠ জুড়ে চাষ হয়েছে বোরো ধানের। মাঠের দিকে তাকালে যেমন চোখ জুড়ে যায়, তেমনি ধানের ফলনের মাত্রার দিকে তাকালেও যেন এক আত্মতৃপ্তি আসে।
চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা না দিলে বোরো ধানের বাম্পার ফলনের আশা করছেন এ উপজেলার ধান চাষীরা।
উপজেলার বাটেরহুদ গ্রামের ধানচাষী মিজান বলেন, চলতি বছরে ধানের তেমন কোন রোগ বালাই না থাকার ফলে গত বছরের ন্যায় এবারো ধানের বাম্পার ফলন দেখা যাচ্ছে। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে গত বছরের ন্যায় এবারো ধানের বাম্পার ফলন সহ উচ্চ দামে বোরো ধান বিক্রয় সম্ভব হবে।
উপজেলা উপসহকারি কৃষি অফিসার নুরে আলম ভুট্টো জানান, চলতি বছরে এ উপজেলায় মোট ৯ হাজার ৯ শত ৫০ হেক্টর জমিতে চাষ হচ্ছে বোরো ধান। এ বছরে আবহাওয়ার অবনতি না হলে প্রতি বিঘায় ২০/২৫ মন হারে ধান উৎপাদন হতে পারে।
সব মিলিয়ে আবহাওয়ার অবনতি না ঘটলে এ বছরে বোরো ধান চাষে ব্যাপক লাভবান হতে পারেন এলাকার প্রান্তিক কৃষকরা।

Share This post