ইমতিয়াজ সিদ্দিকী তোহা:
বিখ্যাত দার্শনিক হেলেন কিলার বলেছেন, “পৃথিবীর সুন্দরতম জিনিসগুলো হাতে ছোঁয়া যায় না, চোখে দেখা যায় না, সেগুলো একমাত্র হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে হয়- ভালবাসা, জীবে দয়া আর আন্তরিকতা” সে রকম একটি সুন্দরতম কাজ কিংবা সংগঠন এর নাম “প্রভাত সমাজ কল্যাণ সংস্হা”। যা হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে হয়।

এটি ব্যতিক্রমী একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। স্বেচ্ছায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোই এই সংগঠনের কাজ। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষিত বেকার তরুণ-যুবক এ সংগঠন গড়ে তুলেছেন।

এই সংগঠনের যুবকেরা নিজ উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্ত দান, গ্রামের রাস্তা সংস্কার, মেরামত, রাস্তা পরিষ্কার করা, দরিদ্র মেয়ের বিয়েতে সাহায্য করা, গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের মধ্যে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা, বিনা মূল্যে পড়ানো, কম্বল বিতরণ,মাহে রমজানে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার ও সাহরী বিতরণ,পথ শিশুদের জন্য প্রভাত আনন্দ স্কুলে পাঠদান, খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কুইজ প্রতিযোগিতা, বনভোজন, মহান বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবস পালন করাসহ দরিদ্রদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে থাকেন।

সংগঠনের রয়েছে কেন্দ্রিয় কমিটি। যার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন উপজেলায় তাদের কার্যক্রম চলছে।

জানা গেছে, ২০১১ সালে প্রভাত সমাজ কল্যাণ সংস্হার আত্নপ্রকাশ ঘটে উদ্যোমী কিছু স্বপ্নবাজ যুবকের নেতৃত্বে।গ্রাম উন্নয়নের কাজ দেখে আশপাশের অন্য বেকার যুবকেরাও এগিয়ে এসেছেন। অনেক স্কুল-কলেজের ছাত্ররাও যুক্ত হয়েছেন সূর্য তারা যুব সংগঠনে। বর্তমানে এই সংগঠনে সদস্য সংখ্যা দাঁড়িয়েছে বহুগুন।

এমনকি তাদের প্রত্যাশা প্রশাসনের সহযোগিতা পেলে আরো এগিয়ে যেতে পারবে সামনে। হাসি ফোঁটাতে পারবে অগনিত অসহায় মানুষের মুখে। বিত্তবান শ্রেণীর লোকদেরও এগিয়ে আসা উচিত চারপাশে থাকা অসহায় মানুষের চোখের পানি মুছতে।

Share This post