• শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৫:০০ অপরাহ্ন

শাহরাস্তিতে ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে সংঘর্ষ : আহত-৫

আপডেটঃ : শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১

শাহরাস্তি প্রতিনিধি
চাঁদপুুরের শাহরাস্তিতে ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে আপত্তিকর কমেন্ট করাকে কেন্দ্র করে টামটা দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক মোঃ মোতাহের হোসেন টিটুসহ কমপক্ষে ৫ জন গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনাটি ঘটে গেল গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার ওয়ারুক বাজারে।

জানা যায়, গত দুইদিন আগে রুবেল প্রধানীয়া নামক এক ব্যক্তি টামটা দক্ষিন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান জামাল আহমেদকে নিয়ে তার ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। ওই স্ট্যাটাসের কমেন্টে আবদুর রহমান মাসুম (২০) নামক অপর ব্যক্তি “১০০০% ঠিক, ভাগ ভাটোরায় কম পড়লে ঐ লোকটারেও ডিম থেরাপি দিবো” লিখলে টামটা দক্ষিন ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের আহ্বায়ক মোতাহের হোসেন টিটু রি-কমেন্টে মাসুমের কাছে জানতে লিখেন “কি লিখলেন বুঝতেছিনা” তখন মাসুম টিটুকে রিপ্লে লিখেন, বাংলা লিখছি পড়তে না পারলে স্কুলে যান”।

এসময় পোষ্ট দাতা রুবেল প্রধানীয়া রি-কমেন্টে লিখেন, কিরে তুই এতো বেয়াদপ কেন? এই প্রশ্নের জবাবে মাসুম রুবেল প্রধানীয়াকে লিখেন, “না ভাই আপনি ভুল বুঝতাছেন”।

এই লিখাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও পরে হাতাহাতি হয়। এতে মোতাহের হোসেন টিটু উভয় পক্ষকে থামাতে এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষের আঘাতে গুরুতর আহত হন তিনি। স্থানীয় লোকজন আহত টিটুকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এদিকে ঘটনার দিন রাতে আহত টিটু বাদী হয়ে এবং ৫ জনকে বিবাদী করে এ ঘটনার জেরে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এ ঘটনায় আহত অন্যান্যরা হলেন, ওয়ারুকের মোঃ মুনছুর আলমের পুত্র মোঃ ইমতিয়াজ আলম (১৮), শফিকুর রহমানের পুত্র মাহমুদ আলম (১৯), হারুনুর রশিদের পুত্র নাবিদ আলম (১৯), মোঃ লোকমান হোসেনের পুত্র তানভির আহমেদ (১৮)।

এবিষয়ে রুবেল প্রধানীয়া বলেন, আমি জামাল ভাইকে নিয়ে আমার ফেসবুক আইডিতে একটি পোষ্ট দেই। ওই পোষ্টের কমেন্টে আবদুর রহমান মাসুম আপত্তিকর মন্তব্য করে। এতে কিছু সংখ্যক জামাল ভাই সমর্থকের মনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়।

ঘটনার দিন ঐ সময়ে তারা মাসুমকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সেও তার সাথে আসা ছেলেরা জিজ্ঞাসাকারীদের মারতে শুরু করে। ডাক-চিৎকার শুনে টিটু এগিয়ে এসে উভয় পক্ষকে থামাতে গেলে তারা টিটুর মাথায় আঘাত করে। তখন টিটু ঘটনাস্থলে রক্তাক্ত অবস্থায় লুটে পড়ে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত কাউকে খোঁজ করে পাওয়া যায় নি বলে তাৎক্ষণিক তাদরে বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

স্থানীয়রা বলেন, ওয়ারুক বাজারে প্রতিনিয়তই ঘটছে এধরনের ঘটনা। কে বা কারা দিচ্ছে উস্কানি! কিংবা আশ্রয়- প্রশ্রয় তা জানা অত্যন্ত প্রয়োজন। এধরনের ঘটনায় ধাওয়া পাল্টা-ধাওয়ার মতো বিশৃঙ্খলা ছড়িয়ে বাজারে নৈরাজ্য সৃষ্টি করছে তারা। যে কারনে বাজার ব্যবসায়ীরা সব সময় আতংকগ্রস্ত থাকেন। বাজারের পরিবেশ নষ্ট করা ব্যক্তিদের চিহৃিত করে দ্রুত তাদেরকে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবি জানান তারা।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…