• মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৯:৪০ অপরাহ্ন

শাহরাস্তি টামটায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু!

আপডেটঃ : সোমবার, ১০ এপ্রিল, ২০২৩

শাহরাস্তি প্রতিনিধি
চাঁদপুরের শাহরাস্তির টামটা মাইজের বাড়িতে নুরুন নাহার স্বপ্না (২৫) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

থানা পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের টামটা গ্রামের হুমায়ুন কবিরের পুত্র বাহারাইন প্রবাসী আনিসুর রহমানের সাথে ৯ বছর পূর্বে একই উপজেলার মেহের দক্ষিণ ইউনিয়নের মালরা মজুমদার বাড়ির মোঃ আবুল কালামের কন্যা নুরুন নাহার স্বপ্নার (২৫) বিবাহ হয়। দীর্ঘদিন ধরে তাদের সংসারে কলহ লেগেই থাকতো।তাদের ঘরে আদিবা নামের ৪ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। শুক্রবার (৭ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা থেকে সাড়ে ৮ টার মধ্যে নুরুন নাহার স্বপ্না বসত ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে তার শশুর হুমায়ুন কবির জানান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে শনিবার (৮ এপ্রিল) সকালে ময়না তদন্তের জন্য তার লাশ মর্গে মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নিহতের পিতা মোঃ আবুল কালাম শাহরাস্তি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করলেও নিহতের মা দেলোয়ারা বেগম ও ভাই আলাউদ্দিন নয়নের দাবি ভুক্তভোগীকে হত্যা করে প্রথমে হার্ট এটাক ও পরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেছে বলে প্রচার করা হচ্ছে।

নিহতের মা দেলোয়ারা বেগম বলেনন, আমার মেয়ে স্বপ্না কোন অবস্থায় ফাঁস দিতে পারেন না। তার শাশুড়ি জোৎস্না বেগম ও ননদ হালিমা আক্তার প্রকাশ ঝুলন তার মেয়েকে খুন করেছে।

নিহতের ভাই মোঃ আলাউদ্দিন নয়ন জানান, বিয়ের পর থেকেই তার বোনের শ্বশুর হুমায়ূন, শাশুড়ি জোৎস্না বেগম ও ননদ হালিমা আক্তার ঝুলন তাকে বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার করে আসছে। বোনের মৃত্যুর ২ দিন আগেও তাদের দালান নির্মানের জন্য ঋণ করে ৩০ হাজার টাকা দিয়ে গেছি। সেখানে তাদের চাওয়া ছিল ৫০ হাজার টাকা। ২০ হাজার টাকা কম থাকায় সেদিন ইফতারের পূর্বে তারা আমার সাথে মুঠোফোনে খুব খারাপ আচরণ করেছে।

শাহরাস্তি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেন জানান, মৃত্যুর সঠিক কারন জানতে নিহতের মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…