• শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৫:২২ অপরাহ্ন

হাজীগঞ্জে সদ্য বিবাহীতা তরুণীর ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

আপডেটঃ : রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি:
হাজীগঞ্জে মনিকা আক্তার (১৮) নামের সদ্য বিবাহীতা এক তরুণী গলায় ফাঁস দিয়ে বাবার বাড়িতে আত্মহত্যার করার খবর পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার রাতে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধারপূর্বক ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করে হাজীগঞ্জ পুলিশ। মনিকা আক্তার হাজীগঞ্জ পৌরসভাধীন ৮নং ওয়ার্ড টোরাগড় গ্রামের কাজী বাড়ির আহমেদ শরীফের মেয়ে। সম্প্রতি তার পছন্দের ছেলের সাথে বিয়ে হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মনিকা আক্তার খুব রাগী। সম্প্রতি তার পছন্দের এক ছেলের সাথে নারায়নগঞ্জে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পর সে বাবার বাড়িতেই থাকতো, এখনো স্বামীর বাড়িতে যাওয়া হয়নি। গত বৃহ্স্পতিবার দিবাগত রাতে পরিবারের সবার সাথে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ে মনিকা আক্তার। পরের দিন শুক্রবার সকালে ঘুম থেকে না উঠায় তাকে বেশ ডাকাডাকি করে পরিবারের লোকজন।
এরপর দরজা ভেঙ্গে পরিবারের লোকজন রুমে প্রবেশ করে মনিকা আক্তারকে বৈদ্যুতিক পাখার সাথে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে হাজীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক কাজী মো. জাকারিয়া মরদেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসে। এদিন চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের নিকট মনিকা আক্তারের মরদেহ হস্তান্তর করে পুলিশ।
নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মনিকা আক্তারের সাথে পরিবারের কারো কোন মন-মালিন্য বা ঝগড়া-বিবাদ হয়নি। তবে সে খুব রাগী ও বদমেজাজী ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, তার স্বামী বা শশুর বাড়ির শশুর বাড়ির লোকদের সম্পর্কে পারিবারিকভাবে আলোচনা-সমালোচনা থেকে হয়তো রাগ নিয়ন্ত্রন করতে না পেরে আত্মহত্যার করে থাকতে পারে। তবে পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।
হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ জানান, ময়নাতদন্ত শেষে মনিকা আক্তারের মরদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরবর্তীতে এবং ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…