গাজী মমিন,ফরিদগঞ্জ(চাঁদপুর) প্রতিনিধি:
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় অনাথ দাস(৫৭) নামে মধ্য বয়সী এক ব্যক্তির গলিত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।
রোববার (২৫ জুলাই) দুপুরে উপজেলার ৮নং পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের দক্ষিণ কড়ৈতলী গ্রামের একটি খাল পাড় থেকে এই লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত ব্যক্তি একই ইউনিয়নের খুরুমখালী গ্রামের প্রয়াত গোপাল চন্দ্র দাসের ছেলে। পেশায় সে জেলে অনাথ দাস তিন সন্তানের জনক।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আলী হায়দার পাটওয়ারী জানান, পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের সাহাপুর ও দক্ষিণ কড়ৈতলী গ্রামকে বিভক্তকারী ডাকাতিয়া নদীর কচুরিপানা শাখা খাল থেকে মানুষের লাশ পড়ে আছে স্থানীয় লোকজন জানায়। পরে থানা পুলিশকে সংবাদ দিলে লাশ উদ্ধার করে।
স্থানীয়রা জানায়, সাহাপুর গ্রামের পণ্ডিত বাড়ি ও দক্ষিণ কড়ৈতলী গ্রামের লদ বাড়ির মধ্যখানে খালের মধ্যে কচুরিপানা মধ্যে থাকা লাশটির গলিত অবস্থায় পড়ে ছিল। লুঙ্গি গোচ দেয়া এবং গায়ে নীল রংঙের একটি গেঞ্জি বা শার্ট ছিল। । লাশ পচঁন ধরা দেখে মনে হচ্ছে ৪/৫দিন আগের।
এদিকে লাশ উদ্ধারের সন্ধান পেয়ে একই ইউনিয়নের খুরুমখালী গ্রামের রঘুনাথ দাস ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি তার নিঁেখাজ ভাই অনাথ দাস(৫৭) এর বলে সনাক্ত করেন। তিনি জানান, গত সোমবার সকালে তিনি বাজারের উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর আর ফিরেন নি।
বিষয়টি নিয়ে পিবিআই ইন্সপেক্টর মো. আতিকুর রহমান জানান, আমরা সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে অর্ধগলিত লাশ দেখতে পাই। লাশের বুকে , মাথায় ও হাতে-পয়ে আঘাতের চিহ্নি রয়েছে। ধারণা করা যাচ্ছে , আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটায় আমাদের ছায়া তদন্ত কাজ চলছে , আমরা থানা পুলিশকে সহায়তা করছি।
এব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, প্রথমে অজ্ঞাত পরিচয় হিসেবে লাশটি উদ্ধার করতে গেলেও ঘটনাস্থলেই লাশটির পরিচয় পাওয়া গেছে। নিহত ব্যক্তি অনাথ দাস। পেশায় একজন জেলে। তার ভাই রঘুনাথ দাস পরনের লুঙ্গি ও গায়ের গেঞ্জি দেখে সনাক্ত করেছেন। লাশটি উদ্ধার করে পোস্ট মর্টেমের জন্য চাঁদপুরে পাঠানোর প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

Share This post