• শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৬:০৫ পূর্বাহ্ন

শেয়ারবাজার ৩১মে থেকে লেনদেন চালু হচ্ছে

আপডেটঃ : শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের কারণে দুই মাসের বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকার পর আগামী রোববার (৩১ মে) থেকে দেশের শেয়ারবাজারে আবার লেনদেন চালু হচ্ছে। তবে করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শেয়ার বাজারে প্রতিদিন তিন ঘণ্টা করে লেনদেন হবে।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হবে। যা বিরতিহীনভাবে চলবে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত।

লেনদেন চালুর বিষয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) অনাপত্তি দেয়ার প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এ বিষয়ে ডিএসই থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সম্মতিক্রমে আগামী রোববার (৩১ মে) থেকে লেনদেন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএসই। বিনিয়োগকারীদের স্বার্থের কথা বিবেচনা করে সরকারে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যবিধি মেনে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে, সকল প্রকার সুরক্ষা নিশ্চিত করে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ডিএসইর লেনদেন কার্যক্রম, কিয়ারিং হাউজের কার্যক্রমসহ সকল প্রকার দাফতরিক কার্যক্রম চালু থাকবে।

এতে বলা হয়েছে, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড মতিঝিলের ডিএসই বিল্ডিং এবং ডিএসই এনেক্স বিল্ডিংয়ে প্রবেশের সময় সরকারে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেকহোল্ডার এবং স্টেকহোল্ডার কোম্পানির সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিনিয়োগকারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় যেমন- হ্যান্ড স্যানিটাইজার, থার্মাল স্ক্যানার এবং অন্যান্যের মাধ্যমে প্রত্যেক বিনিয়োগকারীদের ব্রোকারেজ হাউজে প্রবেশের ব্যবস্থা করেছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে সকল ব্রোকারেজ হাউজকে কোভিড-১৯ এ সতর্কতার জন্য কোনো হ্যান্ড শেক ও আলিঙ্গন না করা, পরিমিত দূরত্ব বজায় রাখা, হাঁচি বা কাশি বা সন্দেহজনক লক্ষণসমূহ যেসব কর্মকর্তা বা কর্মচারী এবং ক্লায়েন্টের রয়েছে তাদের শনাক্ত, অফিস প্রাঙ্গণে প্রবেশের জন্য প্রতিবার হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা, ব্রোকারেজ হাউজে কর্মচারী এবং ক্লায়েন্টদের মাস্ক সরবরাহ করা, দর্শনার্থীদের অফিসে প্রবেশ করতে নিরুৎসাহিত করা, কর্মীদের শিপটিং অফিসের ব্যবস্থা করা এবং অফিসে মুখোমুখি বৈঠক থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন।

এর আগে, বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ৭২৬তম কমিশন সভায় শেয়ারবাজারে আবার লেনদেন চালুর বিষয়ে অনাপত্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিএসইসির কমিশন সভার বিষয়ে নির্বাহী পরিচালক মো. আনোয়ারুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ এর বিস্তাররোধে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় প্রণীত সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত অফিস আদেশ পরিপালন সাপেক্ষে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই ও সিএসই) লেনদেন ও সেটেলমেন্টসহ এ সংক্রান্ত সকল কর্মকাণ্ড পুনরায় শুরু করার জন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের পক্ষ থেকে অনাপত্তি প্রদানের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলার অংশ হিসেবে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির সঙ্গে তাল মিলিয়ে শেয়ারবাজারও ২ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে। যা শুরু হয়েছে গত ২৬ মার্চ।

করোনাভাইরাসের কারণে সরকার সর্বপ্রথম গত ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে। এরপর প্রথম দফায় ৭ দিন সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে ৫ এপ্রিল থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত করা হয় এবং দ্বিতীয় দফায় ৩ দিন সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত করে। এরপর ১১ দিন বাড়িয়ে সাধারণ ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত, আরও ১০দিন বাড়িয়ে ৫ মে পর্যন্ত এই বর্ধিত করা হয়। যা পঞ্চম দফায় ১১ দিন বাড়িয়ে ১৬ মে পর্যন্ত করা হয়েছিল। আর সর্বশেষ ১৪ দিন সাধারণ ছুটি বাড়িয়ে ৩০ মে পর্যন্ত করা হয়েছে। সরকারের এই সাধারণ ছুটি বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ধাপে ধাপে শেয়ারবাজারের লেনদেনও বন্ধ রাখা হয়।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…