• শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন

করোনা উপসর্গের তথ্য গোপন রেখে আইসিডিডিআরবিতে ভর্তি;বাড়ী পৌঁছানোর আগেই মৃত্যু

আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ১২ মে, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

করোনা উপসর্গের তথ্য গোপন করে ডায়রিয়ার কথা বলে মতলবের আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রে( আইসিডিডিআরবি) ভর্তি হন হাজীগঞ্জের রহিমা বেগম (৬০)। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক রোগীর লোকজনকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দিলে পথে ওই মহিলার মৃত্যু হয়।

জানা যায়, হাজীগঞ্জ পৌরসভার ১০ নং ওয়ার্ড রান্ধুনিমুড়া (সাতবাড়ি)এলাকার রহিমা বেগমকে ১০ মে রবিবার দুপুরে আইসিডিডিআরবি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তখন সেখানকার চিকিৎসক ওই নারীর শরীরে করোনা উপসর্গ (শ্বাসকষ্ট,পাতলা পায়খানা ও জ্বর) আছে পর্যবেক্ষণ করেন। রোগীর লোকজনকে তাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন। রোগীর পরিবার তথ্য গোপন করে রহিমা বেগমকে বাড়ি নিয়ে আশার পথে ওই দিন সন্ধ্যায় সে মারা যায়।

হাসপাতালের চিকিৎসক চন্দ্র শেখর রায় বলেন, ওই রোগীর ডায়রিয়ার চেয়ে অন্যান্য উপসর্গ( জ্বর,শ্বাসকষ্ট) বেশি ছিল। তাই আমরা তাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিতে পরামর্শ দেই।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কাওছার জামিল হিমেল বলেন,হাসপাতাল ইনচার্জের সাথে আমি এ বিষয়েকথা বলেছি।ওই সময় যাঁরা( চিকিৎসক ও নার্স) দায়িত্বে ছিলেন তাদেরকে ওই রোগীর রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত ডিউটি থেকে বিরত রাখা হয়েছে।

ঘটনার তথ্য জানতে পেরে ঘটনাস্থলে ছুটেযান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ ও কচুয়া সার্কেল) আফজাল হোসেন। তখন করোনায় আক্রান্ত মৃত দেহের মতো ওই মহিলার দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়।

এসময় ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টি.আই) তালুকদার আল মামুন, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুন্সি মোহাম্মদ মনির, গণমাধ্যম কর্মী সাইফুল ইসলাম সিফাত ও মজিবুর রহমান রনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…