• শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪২ অপরাহ্ন

হাজীগঞ্জে অসহায় কৃষকের ধান কেটে প্রশংসা কুঁড়িয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ

আপডেটঃ : বৃহস্পতিবার, ৭ মে, ২০২০

হাজীগঞ্জ : মাথায় ধানের বোজা বহন করছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবায়েদুর রহমান খোকন বলি

 

মুনছুর আহমেদ বিপ্লবঃ

 

করোনা আতংকে সারাদেশে মানুষজন সেলফ কোয়ারেন্টাইনে এবং সকল কাজ কর্ম বন্ধ থাকায় দরিদ্র ও নিম্নআয়ের মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে ধান কাটার শ্রমিক খুঁজে না পাওয়ায় কৃষকরা দুর্ভোগ পোহান সবচেয়ে বেশি। তাই করোনা পরিস্থিতিতে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে হাজীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

 

 

কৃষক বাঁচলে বাঁচবে দেশ, শেখ হাসিনার নির্দেশ এই শ্লোগান কে সামনে রেখে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবায়েদুর রহমান খোকন বলির নির্দেশে কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এর আগে শ্রমিকের অভাবে যেসব কৃষক ধান কাটতে পারছেন না তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সামাজি যোগাযোগে নির্দেশনা দেন ছাত্রলীগ সভাপতি। এরপর থেকে শুরু হয় ধানা কাটা কার্যক্রম।

( কাজের মাঝে নেতাকর্মিদের সাথে সেলফিবাজিতে সভাপতি )

 

 

যেখানে করোনা আতঙ্কে লোকজন ঘরবন্দী, সেখানে কাঠফাটা রোদে স্বেচ্ছায় বিনা পারিশ্রমিকে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। প্রতিনিয়ত তারা শ্রমিকবেশে কাজ করছেন মাঠে, কাস্তে হাতে কাটছেন জমির পাকা ধান, মাথায় বয়ে নিয়ে তুলে দিচ্ছেন কৃষকের ঘরে ঘরে। এতে কৃষকসহ এলাকায় প্রশংসা কুড়িয়েছে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

 

বিরাজমান দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যে দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়েছেন সে কারণে খুশি এলাকাবাসী ও কৃষকরা। শুধু ধান কাটা নয়, করোনা প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে খাদ্য সামগ্রী নিয়েও দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ। তারা ব্যক্তিগত এবং যৌথ উদ্যোগেও কর্মহীনের পাশাপাশি অসহায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর পরিবারকেও সহযোগিতা করেছেন।

( ধানের বোজা মাথায় নিয়ে সারিবদ্ধ ভাবে কৃষকের বাড়ির উদ্দেশ্যে )

 

সরজমিনে দেখা গেছে, বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. এবায়েদুর রহমান খোকনের নেতৃত্বে ১০নং গন্ধর্ব্যপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের পাঁচৈ গ্রামের তালুকদার বাড়ির কৃষক মো. শরীফ হোসেনের ৯০ শতক জমির পাকা ইরি ধান কেটে বাড়িতে তুলে দেয়।

 

এ সময় ধান কাটায় অংশ নেন উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এআর সুমন, জহির খান, মমিন মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন জীবন ও ফয়সাল মাহমুদ, উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য ও তেজগাঁও কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাজু নিরব, উপজেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক ফরহাদ আলিফ, ইউনিয়ন ছাত্র নেতা শাহপরান খাঁনসহ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ।

( কান্তি দুরকরতে নেতাকর্মিদের নিয়ে একটু বিশ্রামে )

 

কৃষক শরীফ হোসেন বলেন, ধানের ফলন বেশ ভালো হয়েছে। শ্রমিক সংকট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের আগে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারব কিনা তা নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলাম। উপজেলা ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ধান কেটে আমাকে সহযোগিতা করেন । তারা ধান কেটে আমার যে উপকার করেছেন এজন্য আমি তাদের প্রতি চিরকৃতজ্ঞ।

 

এই ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবায়েদুর রহমান খোকন বলি জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, কেন্দ্রিয় ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের আহ্বানে এবং জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে স্বেচ্ছাশ্রমে কৃষকদের ধান কেটে দিচ্ছি। তাছাড়া করোনা ভাইরাসের কারণে ধান কাটা শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। কয়েকদিন যাবত প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টির পানিতে অনেক কৃষকদের ধান তলিয়ে গেছে। এ কথা ভেবে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে অসহায় কৃষকের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। যতদিন করোনার প্রভাবে শ্রমিক সংকট থাকবে আমাদের এই কর্মকান্ড অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ ।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…