• সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন

চাঁদপুরের বাবুরহাটে লোকনাথ ব্রহ্মচারীর পাদুকা উৎসব

আপডেটঃ : শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

 

অমরেশ দত্ত জয়ঃ

চাঁদপুর পৌর ১৪নং ওয়ার্ডের শিলন্দীয়া চন্দ বাড়ীতে যথাযোগ্য মর্যাদায় সনাতনধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত হলো ব্রহ্মজ্ঞ মহাপুরুষ শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী বাবার ১০ম বার্ষিক পাদুকা উৎসব।২৮ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার চন্দ বাড়ীর আয়োজকদের পক্ষে একথা জানান অর্জুন কুমার চন্দ।তিনি জানান,দিনব্যাপী মহাযোগী শ্রী শ্রী লোকনাথ ব্রহ্মচারী বাবার ১০ম বার্ষিক পাদুকা উৎসব করা হয়েছে।উৎসবের অনুষ্ঠানে সকাল ৯ টায় বাল্যভোগ,বিকাল ৪টায় রাজভোগ,৬ টায় সন্ধ্যা আরতী ও রাত ৮ টায় সঙ্গীতানুষ্ঠান করা হয়েছে।এই উৎসবে সকল সনাতনধর্মী ভক্তবৃন্দের সবান্ধব উপস্থিতি উৎসব প্রাঙ্গনকে মুখোরিত করেছে।তিনি আরো জানান,১৭৩০ খ্রিস্টাব্দে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণার বারাসাতে বাবা লোকনাথের আবির্ভাব হয়।পরে ১৮৯০ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশের নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও বারদীতে বাবা তিরোধান করেন।এ সময় তিনি বাবা লোকনাথের একটি বাণী শুনান,তা হলো-“রনে,বনে,জলে,জঙ্গলে-যখনই বিপদে পড়িবে,আমাকে স্মরণ করিবে, আমিই রক্ষা করিব”।এদিকে বিকালের মহাপ্রসাদ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন চাঁদপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পদক সুকমল কর রামু,জেলা শারদাঞ্জলি ফোরামের সহ-সভাপতি চন্দন দে,আ’লীগ নেতা বিজয় পাল,সমাজ সেবক মনা ঠাকুর,শিতল দে,অনিক কুমার চন্দ প্রমুখ।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…