• শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

প্রশাসনের সিদ্ধান্তকে অমান্য করে বুক কাঁপিয়ে ফরিদগঞ্জে চলছে নিষিদ্ধ ট্রাক্টর

আপডেটঃ : মঙ্গলবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

নিজস্ব প্রতিনিধি :
গত বছর তিন বছর পূর্বে সড়কগুলোকে ট্রাক্টর চলাচলের উপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ। সে সময় পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার জেলার ট্রাক্টর মালিকদের তার কার্যালয়ে ডেকে এনে চুড়ান্ত নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়ে দেন। জেলায় হাজারেরও বেশি ট্রাক্টর রয়েছে। এসব ট্রাক্টর বিভিন্ন মালামাল, বিশেষ করে নির্মাণ সামগ্রীই বেশি পরিবহন করে থাকে।

 

‘ট্রাক্টর শুধুমাত্র কৃষি কাজে ব্যবহারের জন্য সরকার অনুমতি দিয়েছে। এটি রাস্তায় চলাচলের অনুমোদন নেই। তাছাড়া ট্রাক্টরের পিছনে যে বিশাল বডি লাগানো হয় তা সম্পূর্ণ বেআইনি। এরই মধ্যে দেখা যাচ্ছে ফরিদগঞ্জে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে কৃষি জমি থেকে ইটভাটার জন্যে মাটি কেটে নিচ্ছে ইট ব্যবসায়ীদের মধ্যে অসাধু একটি।

 

প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অমান্য করে এ কাজে নিষিদ্ধ করা অবৈধ ট্রাক্টর ব্যবহার করছে। এমনই এক এক ইটভাটার মালিক কবির হোসেন’র বিরুদ্ধে শাকিল মোল্লা নামে এক ভুক্তভোগী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, কৃষি কর্মকর্তা ও ওসি ফরিদগঞ্জ থানা বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগকারী শাকিল মোল্লা জানান, উপজেলার সুবিদপুর পূর্ব ইউনিয়নের নাফিসা ব্রিক ফিল্ডের মালিক কবির পাটওয়ারী তার ইটভাটার জন্যে ওই এলাকার দক্ষিণ সুবিদপুর গ্রামের কৃষি জমি থেকে ভেকু দিয়ে মাটি কেটে নিচ্ছে। সড়কে ট্রাক্টর চালানো নিষিদ্ধ হলেও এ ট্রাক্টর দিয়েই তার ইটভাটায় মাটি নেয়া হচ্ছে।

 

এতে করে ওই কৃষি জমিগুলো পতিত জমিতে পরিণত হওয়ার সাথে সাথে নিষিদ্ধ ট্রাক্টর অবাধে চলাচল করার কারণে সড়কগুলো নষ্ট হচ্ছে। এ ব্যাপারে তাকে বিষয়টি জানিয়ে বাধা দিতে গেলে বাধা না মেনে সে খারাপ আচরণ করছে স্থানীয় লোকজনের সাথে। ফলে বাধ্য হয়ে গত ১৩ ফেব্রুয়ারী তিনি ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, কৃষি কর্মকর্তা ও ফরিদগঞ্জ থানার ওসি বরাবর ব্যবস্থা নেয়ার দাবিতে লিখিত অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলী হরি জানান, সর্বশেষ উপজেলা পরিষদের মাসিক সমন্বয় সভায় সড়কে ট্রাক্টর চলাচল নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়। অভিযোগটি আমি হাতে পাইনি , পাইলে তদন্তকরে ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…