• বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১১ পূর্বাহ্ন

ফরিদগঞ্জে ফুলের চাষ করে স্বাবলম্বী দুই বন্ধু

আপডেটঃ : শুক্রবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০

গাজী মমিন :
ধান চাষের চেয়ে ফুলের চাষ লাভজনক, তা ভেবে দুই বন্ধু মিলে প্রায় ৩০ শতাংশ জায়গায় ফুলের চাষ শুরু করেছে। প্রতিদিনই ফুলের নার্সারি সাজানো নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন দুই বন্ধু আনোয়ার হোসেন গাজী ও রিপন ভুইয়া। এ ফুলের চাষ হচ্ছে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ পৌরসভার পূর্ব বড়ালী গ্রামে। এ অঞ্চলে এই প্রথম ফুলের চাষের খবর পেয়ে প্রতিদিনই এখন ওই দুই বন্ধুর সাজানো ফুলের বাগানে ফুলের চাষ দেখতে উৎসুক জনতা ভীড় করছে।

 

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে এ ফুলের নার্সারির পাশে গিয়ে বিভিন্ন ফুলের সুবাস ভেসে আসছে নাকে। ফুলের গন্ধে মুহু মুহু করছে পুরো এলাকা। দূর থেকে এ ফুলের নার্সারির অপরুপ সৌন্দর্য অনেককেই আকৃষ্ট করছে।
ফুলের চাষ করা দুই বন্ধু মো. আনোয়ারের সাথে কথা বলে জানা যায়, এই জায়গায় এক সময়ে ধানের আবাদ করা হতো। কিন্তু ধান চাষে লাভ না হওয়ায় এই জায়গার ধান চাষ আর করছেন না। ওরা দুই বন্ধু মিলে প্রায় ৩০ শতাংশ জায়গায় গত ৬ মাস পূর্বে শুরু করে তারা ফুলের চাষ করে আসছেন। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের চারা এনে এই নার্সারিতে রোপন করা হয়েছে।

 

বর্তমানে ওই ফুলের নার্সারিতে রয়েছে গোলাপ,রজনীগন্ধা,হাসনা হেনা,গাঁদা,এ্যানকোর, জবা,দোপাট্টা,কচমচ, ডালিয়া,ক্যালেন ভূনা, নয়নতারা,মোরগফুল,ড্যালটার্স, ্এ্যালোবেলা সহ আরো নাম জানা অজানা হরেক রকম ফুলের চাষ হচ্ছে এই বাগানে। এ বাগান থেকে ফুলপ্রেমী নারী পুরুষরা প্রতিদিনই যারযার পছন্দের ফুল ক্রয় করে নিয়ে যায়।
ওই ফুলের বাগানের মালিক আনোয়ার হোসেন গাজী ও রিপন ভুইয়া জানান, এই জায়গায় ফুলের চাষ করে স্বাবলম্বি হওয়ার আশায় প্রায় দুই লাখ টাকা পূঁজি নিয়ে শুরু হয় ফুলের চারা রোপন। গত ৬ মাসে প্রায় ৮০ হাজার টাকার ফুলের চারা এই বাগান থেকে বিক্রি করা হয়েছে। তারা আরো জানান, বৈরী আবহাওয়া না থাকলে তারা এই ফুলের চাষ করা বাগান থেকে চারা বিক্রি করে লাভবান হবেন।

 

ফরিদগঞ্জে এই প্রথম ফুলের চাষ প্রসংগে ফরিদগঞ্জে উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নুরে আলম ভুট্টো বলেন, ফুলের চাষ লাভ জনক । তাই পূর্ব বড়ালী গ্রামে এখন ফুলের চাষে এখন আগ্রহ দেখা দিয়েছে আনোয়ার ও রিপনের। যার ফলে নিজেকে স্বাবলম্বী করে নতুন কর্মসংস্থার এক নুতন সুযোগ তৈরী হয়েছে।

 

ওই গ্রামে ফুলের চাষের খবর শুনে ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি গতকাল বৃহস্পতিবার আনোয়ার ও রিপনের ফুলের নার্সারির প্রশংসা করে এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমি সরেজমিনে ওই ফুলের চাষের বাগান দেখে তা থেকে নিজে বেশ কিছু ফুলের চারাও ক্রয় করে এনেছি। ফুলের চাষ এখন লাভজনক।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…