• শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউপি নির্বাচনে ফলাফল কারচুপি ॥ নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ

আপডেটঃ : রবিবার, ৪ আগস্ট, ২০১৯

 

মো. শিমুল হাছান

ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৮ নং ওয়ার্ডের ফলাফল কারচুপির অভিযোগে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী (ক্যামেরা প্রতিক) রাবেয়া বেগম।

অভিযোগের আলোকে দেখা যায়, গত ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিত ১৪ নং ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ৭,৮,ও ৯ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা আসনে ক্যামরা প্রতিক নিয়ে রাবেয়া বেগম নির্বাচনে অংশ গ্রহন করে।

এতে ৭নং ওয়ার্ডে ক্যামেরা প্রতিক ৪৪৬ ভোট পায়, নিকটতম প্রতিদ¦›িদ্ধ মাইক প্রতিক ১৯৩ ভোট। ৯ নং ওয়ার্ডে ক্যামেরা প্রতিকে ৯০৬ ভোট পায়, নিকটতম প্রতিদ্ব›িদ্ধ মাইক প্রতিক ৪৫৩ ভোট পায়।

ক্যামেরা প্রতিকের প্রার্থী রাবেয়া বেগম অভিযোগ করে বলেন, ৮ নং ওয়ার্ডে ভোট গননার সময় আমার এজেন্ট বের করে দেওয়া হয় এবং ফলাফল সীটেও আমার কোন স্বাক্ষর নেওয়া হয় নাই। কেন্দ্রে তর্ক- বিতর্কের এক পর্যায়ে পুলিশ ও বিজিবি ফাঁকা গুলি দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে ব্যালট বক্স উপজেলায় নিয়ে আসে। পরে আনুমানিক ১০ টার দিকে এসে জানতে পারলাম ক্যামরার ভোট দেখিয়েছে ১৫০। প্রতিদ্বদ্ধী মাইক প্রতিকের ভোট দেখানো হয়েছে ৬৯৫। উক্ত রেজাল্ট শিটে আমার ক্যামেরা মার্কার এজেন্ট ওসমান, পিতা- সফি উল্যার কোন স্বাক্ষর ছিল না। তাৎক্ষনিক ভাবে আমি নির্বাচন কমিশনারকে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করি। তিনি আমাকে লিখিত অভিযোগ করতে বলেন। পরে আমি গত ২৮ জুলাই জেলা রিটার্নিং অফিসার, জেলা নির্বাচন কমিশনার, উপজেলা রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কমিশনার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করি। তিনি আরো বলেন, ৮ নং ওয়র্ডেও কেন্দ্রটি মাইক প্রতিকের প্রার্থীর স্বামীর বাড়ি ও প্রার্থীর নিজের বাড়ি হওয়ায় অনৈতিক প্রভাব খাটিয়েছে। এমতাবস্থায়, নির্বাচনী ফলাফল কারচুপি করে আমাকে পরাজিত করায় আমি উক্ত ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি এবং পুনরায় উক্ত ভোট গ্রহনের জোর দাবী জানাচ্ছি।


এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

ফেসবুকে মানব খবর…