মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ও হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজে বিনম্র শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী (৫০তম স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস) পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শুক্রবার (২৬ মার্চ) স্ব-স্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনারে ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ, আলোচনা সভা, দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
শুক্রবার দিনের শুরুতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাজীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদ আহাম্মদের নেতৃত্বে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। পরে কলেজের ছাত্র-শিক্ষক মিলনাতয়নে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ, আলোচনা সভা এবং বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্য এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, কলেজের বিদ্যোৎসাহী সদস্য ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক মুরাদ, বিদ্যোৎসাহী সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন রতন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুল আলম চুননু, কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও পৌর কাউন্সিলর বিল্লাল হোসেন, মো. শাহজামাল, সালাউদ্দিন ফারুক মামুন ও আকতার হোসেন, উপাধ্যক্ষ মো. আনোয়ার উল্যাহ্সহ কলেজের ভূমি দাতা পরিবারের সদস্যরা।
শিক্ষক প্রতিনিধি তৌহিদা আক্তারের উপস্থাপনায় আলোচনা সভার শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন প্রভাষক ফয়েজ আহমেদ, গীতা পাঠ করেন বিকাশ চক্রবর্তী। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন, সহকারী অধ্যাপক আ.ন.ম মফিজুর রহমান। এছাড়াও আলোচনা সভায় শিক্ষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, সহকারী অধ্যাপক মাকছুদুর রহমান, প্রভাষক মো. সেলিম মিয়া, প্রদীপ কুমার দাস, মো. সুমন মিয়া, আনিছুর রহমান ও কামরুন নাহার শিলা প্রমুখ।
এ দিকে দিনের শুরুতেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. আবু ছাইদের নেতৃত্বে শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। পরে বিদ্যালয়ের হলরুমে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পন, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ, আলোচনা সভা এবং বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্য এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. হোসাইনুল আজম, কলেজ শাখার সমন্বয়কারী মো. তাজুল ইসলাম, বিএম শাখার সমন্বয়কারী মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ভোকেশনাল শাখার সমন্বয়ককারী জহিরুল ইসলাম মজুমদার, ইন্সট্রাক্টর মো. শাহজাহান মুন্সী, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান, শ্যামল কৃষ্ণ সাহা, মমতাজ বেগম, রীতা নাগ ও শিক্ষার্থী জান্নাতুল নাঈম প্রমুখ।
প্রভাষক কামরুল হাসানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন অফিস সহকারী মো. আমির হোসেন ও গীতা পাঠ করেন সহকারী শিক্ষক লিপি রানী দে। বক্তব্য শেষে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্য এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সব শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মাওলানা মহিউদ্দিন মো. নাজমুস শাহাদাত।

Share This post