জিসান আহমেদ নান্নু,কচুয়া ॥
কচুয়া পৌর নির্বাচনে ছোট খাটো দুই-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া অবাধ ও সুষ্ঠু শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে ৯টি কেন্দ্রে ভোটাররা উৎসবমূখর ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট প্রদান করেন। নির্বাচনে চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ,জেলা নির্বাচন অফিসার তোফায়েল হোসেন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার দীপায়ণ দাস শুভ,কচুয়া উপজেলা নির্বাচন অফিসার কাজী আবু বকর সিদ্দিকসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
কচুয়া পৌরসভার মোট ১৯ হাজার ৯৯জন ভোটারের মধ্যে ১১ হাজার ৯শ ১৮জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। তন্মেধ্যে ৮ ভোট বাতিল হয়। শতকার ভোটের হার ৬২.৪০%। তবে এ নির্বাচনে পুরুষ ভোটারের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়।
নির্বাচনে মেয়র পদে মোট ৩জন,সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৮জন ও সাধারন কাউন্সিলর পদে ৪৩জন প্রার্থী তুমুল প্রতিদ্ধন্ধিতা করেন। মেয়র পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো: নাজমুল আলম স্বপন ১০ হাজার ২শ ১৫ ভোট পেয়ে ২য় বারের মতো কচুয়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিন্ধন্ধি স্বতন্ত্র প্রার্থী আহসান হাবীব প্রাঞ্জল ৯শ ৯৫ ভোট ও ধানের শীষ প্রতীকে হুমায়ুন কবির ৬শ ৪৭ ভোট পেয়েছেন।
এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর হলেন যারা, ১,২,৩নং জোহরা আক্তার (জবা ফুল) পেয়েছেন ২৬শ ৭৬ ভোট,৪,৫,৬ নং- পারুল আক্তার (চশমা) পেয়েছেন ২৬শ ৬৪ ভোট ও ৭,৮,৯ নং- রোকেয়া বেগম (আনারস) পেয়েছেন ১৪শ ৬০ ভোট।
৯টি ওয়ার্ডে নব নির্বাচিত সাধারন কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন যারা- ১নং ওয়ার্ডে নজরুল ইসলাম পেয়েছেন ৭শ ২৭ ভোট (উট পাখি ),২নং ওয়ার্ডে তাজুল ইসলাম রাজু পেয়েছেন ৪শ ৮৬ ভোট (পাঞ্জাবী), ৩নং ওয়ার্ডে মাহারুন আল মিলি পেয়েছেন ৪শ ৫১ ভোট (পানির বোতল), ৪নং ওয়ার্ডে মো: জাহাঙ্গীর আলম পেয়েছেন ৩শ ৭১ ভোট (ডালিম), ৫নং ওয়ার্ডে আমিনুল হক মিয়াজী পেয়েছেন ৫শ ১ ভোট (পাঞ্জাবী), ৬নং ওয়ার্ডে মো: আব্দুল মান্নান পেয়েছেন ৫শ ৪০ ভোট (উট পাখি),৭নং ওয়ার্ডে মো: কামাল হোসেন অন্তুর পেয়েছেন ৬শ ৭ ভোট (উট পাখি), ৮নং ওয়ার্ডে মো: মাসুদ আলম পেয়েছেন ৭শ ২০ ভোট (পাঞ্জাবী) ও ৯নং ওয়ার্ডে আবুল খায়ের রুমি পেয়েছেন ২শ ৪৭ ভোট (উট পাখি)। এদিকে কচুয়া পৌরসভায় ২য় বারের মতো মেয়র হলেন নাজমুল আলম স্বপন,৮নং ওয়ার্ডে তাঁর বড় ভাই মাসুদ আলম কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলমের বড় ভাবী মাহারুন আল মিলি ৩নং ওয়ার্ডে প্রথম বারের মতো সাধারন কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

Share This post