স্টাফ রিপোর্টার :
চাঁদপুরের মতলব উত্তরের এখলাছপুরে মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ করায় শফিকুল ইসলাম বেপারী নামে এক যুবককে মারধর করে, তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শফিকুল ইসলাম বেপারী একলাশপুর গ্রামের সিরাজুল ইসলাম ছেলে এবং এইচ জে ইউ আর ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানির স্বত্বাধিকারী।
রাফায়েত হোসেন রিপন জানান, কয়েকজন যুবক দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক বিক্রির সঙ্গে জড়িত প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকা থেকে যুবক মাদক নিয়ে শফিকুল ইসলাম এর বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া আসা করে। তাদের প্রতিবাদ করায় পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ২ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে সিরাজ বালার ছেলে নূরুল ইসলাম রাজা ওরফে নুরার নেতৃত্বে মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে আলী, আবুল হোসেন ও দেলোয়ার হোসেন, বিল্লাল প্রধানের ছেলে ইমরান হোসেন ও সোহরাব হোসেন, হাফিজুলের ছেলে মিজানুর রহমান অভি, কামাল হোসেন মুন্সীর ছেলে সাব্বির আহমেদ, শেখ ফরিদের ছেলে সুজন, সিরাজ ফকিরের ছেলে হোসেন, সিরাজ বালার ছেলে নূর হোসেন, সামাদ মেম্বারের ছেলে আলফালা।
তারা শফিকুল ইসলামের দোকানে ঢুকে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে মারধর করে হাত পা ভেঙ্গে মারাত্মক জখম করে। তারা শফিকুল ইসলামের দোকান হতে টাকা পয়সা লুট করে নিয়ে যায়।
পরে স্থানীয়রা শফিকুল ইসলাম বেপারী কে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে আহত শফিকুল ইসলাম বেপারী মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
আহত শফিকুল ইসলাম বেপারীর ভাই রাফায়াত হোসেন রিপন আরো জানান, হামলাকারীরা মাদক, অস্ত্র, ছিনতাই, চুরি, জুয়া’সহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যকলাপের সাথে জড়িত এবং তাদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।
এ ঘটনায় থানায় মামলা প্রস্তুতি চলছে, ঘটনার সঙ্গে জড়িত মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে আইনগত ব্যবস্থা নিতে থানা পুলিশের দৃষ্টি কামনা করেছেন আহত শফিকুল ইসলামের স্বজনরা ও এলাকাবাসী।

Share This post