মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্
হাজীগঞ্জে করোনা উপসর্গে বাবার পর মেয়ে রয়েলি আক্তার (৪৫) মারা গেছেন। তিনি পৌরসভাধীন খাটরা-বিলওয়াই গ্রামের মরহুম আব্দুল লতিফের মেয়ে এবং খাটরা রেফাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা ছিলেন। গত ১৩ জুন মৃত রয়েলির বাবা করোনা উপসর্গে মারা যান। পরবর্তীতে নমুনা পরীক্ষা তার করোনা পজেটিভ আসে। মৃত্যুকালে তিনি স্বামীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।
জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে শ্বাসকষ্টজনিত কারনে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় রয়েলিকে। এরপর তার শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে বুধবার সকালে ঢাকায় নেয়ার পথে তিনি মারা যান। তার বড় ভাই হাবিবুর রহমান জীবন জানান, রয়েলি কিডনীজনিত রোগে ভুগছিলেন। পরে শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে করোনা পরীক্ষায় তার নমুনা সংগ্রহ করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
উল্লেখ্য, জেলার এক সময়ের বিখ্যাত খাবার হোটেল হাজীগঞ্জের ‘রয়েল হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট’ এবং হাজীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী রয়েল রৌশণ সুপার মার্কেট মৃত রয়েলি আক্তারের নামেই নামকরণ করা হয়েছিল। তার বাবা মরহুম আব্দুল লতিফ রৌশন সুপার মার্কেট ও মদিনা সপিং সেন্টার এর স্বত্বাধিকারী। বাবার মৃত্যুর মাত্র ৩৯ দিন পর রয়েলির মৃত্যুতে তাদের পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

Share This post