অমরেশ দত্ত জয়ঃ

 

চাঁদপুর জেলায় ১৮টি স্কুল-কলেজ এমপিওভুক্ত হওয়ায় ওগুলোতে কর্মরত শিক্ষক কর্মচারীদের মনে যেন বাঁধ ভাঙ্গা উল্লাস বইছে।২৯শে এপ্রিল বুধবার এক প্রজ্ঞাপনে এ তালিকা প্রকাশ করা হয়।

ওই তালিকায় দেখা যায়, জেলার উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ ২টি হচ্ছে কচুয়ার মনসুরউদ্দিন মহিলা কলেজ এবং মতলবের নাউরি আদর্শ কলেজ।

তালিকায় আরো দেখা যায়,জেলার স্কুল এন্ড কলেজ ৩টির মধ্যে রয়েছে চাঁদপুর সদরের আল আমিন একাডেমী স্কুল এন্ড কলেজ, কচুয়ায় এম.এ.খালেক মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ এবং ফরিদগঞ্জের শোল্লা হাই স্কুল এন্ড কলেজ।

ওই তালিকায় এমপিওভুক্ত ৬টি হাই স্কুল হচ্ছে চাঁদপুর সদরের রাজরাজেশ্বরের ওমর আলী হাই স্কুল,হাইমচরের ঈশানবালা এম জে এস হাই স্কুল,ফরিদগঞ্জের শাশিআলি হাই স্কুল,শাহরাস্তি ফটিকছড়ি এস এ গার্লস হাই স্কুল,মতলব দক্ষিণের লামচার হাই স্কুল এবং পায়েলি কাদের বক্স মেমোরিয়াল হাই স্কুল।

এছাড়াও তালিকায় জেলার ৭টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে রয়েছে হাজীগঞ্জের বোরখাল আদর্শ হাই স্কুল,ফরিদগঞ্জের আদর্শ একাডেমী,পূর্ব বাড়ালী শাহজাহান কবির জুনিয়র হাই স্কুল,মডেল একাডেমী দেইচর,হাজী মোহাম্মদ সেলিম হাই স্কুল,মতলব দক্ষিণের ডিঙ্গাভাঙ্গা হাই স্কুল এবং আলহাজ্ব তাফাজ্জল হোসেন ঢালি হাই স্কুল।

এই প্রঙ্গাপন প্রসঙ্গে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানের কোড দেয়া প্রথমে সম্পন্ন হবে।এরপর শিক্ষক-কর্মচারীদের কোড দেয়া শুরু হবে। এ প্রক্রিয়াও দ্রুত শেষ করা হবে।আর চলতি অর্থবছরের মধ্যেই শিক্ষক-কর্মচারীরা তাদের বেতন পাবেন।

এদিকে এর শর্ত প্রসঙ্গে জানা যায়,এমপিওভুক্ত স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীগণ জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা-২০১৮ অনুযায়ী তাদের বেতন-ভাতাদি প্রাপ্য হবেন। তবে এক্ষেত্রে শিক্ষক-কর্মচারীদের যোগ্যতা,অভিজ্ঞতা,নিয়োগ পরিপত্র,জনবল কাঠামো- এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী প্রযোজ্য হবে।এমপিওভুক্ত হয়েও তাদের মধ্যে কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নীতিমালা অনুযায়ী যোগ্যতা বজায় রাখতে ব্যর্থ হলে। সে প্রতিষ্ঠানের এমপিও স্থগিত করা হবে।আর সব ঠিক থাকলে শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাদি ১ জুলাই ২০১৯ থেকে কার্যকর হবে।

প্রসঙ্গত, এদিনে ৫ স্তরে দেশের মোট ১ হাজার ৬’শ ৩৩ শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানকে নতুনভাবে এমপিওভুক্তির কোড যুক্ত করে প্রজ্ঞাপনে তালিকা প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।যার মধ্যে চাঁদপুরের ৮ উপজেলার মোট ১৮ টি স্কুল-কলেজও এমপিওভুক্ত করা হয়েছে।

Share This post