গাজী মমিন, ফরিদগঞ্জ:
ফরিদগঞ্জে গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে ডাকাতিয়া নদীতে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ইলেকট্রিক শক দিয়ে মাছ মারার যন্ত্রাংশ জব্দ করা হয়েছে।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফারহানা আকতার রুমার নেতৃত্বে পুলিশ ফোর্স ও মৎস্য অফিসে কর্মরত বিভিন্ন কর্মকর্তাদের অংশ গ্রহণে ৯ অক্টোবর শনিবার রাত ৮ ঘকিটার সময় টোরা মুন্সিরহাট ও কামতা এলাকায় ডাকাতিয়া নদীতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।
এসময় ব্যাটারী ও ইনর্ভাটারের সাহায্যে ইলেকট্রিক শর্ট সার্কিট দিয়ে মাছ শিকারের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ জব্দ করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ২৪ ভোল্টের ব্যাটারি চার্জ দিয়ে ইনর্ভাটার মেশিনের মাধ্যমে ডিসিকে এসিতে রুপান্তর করে নৌকা বাহন করে পানিতে নেগেটিভ আর লাঠির সাথে জাল বেঁধে ওই লাটির মাথায় বিদ্যুতের প্রজেটিভ লাইনটি দিয়ে পানিতে দেওয়া হয়। এসময় আশে-পাশের প্রায় ১৫-২০ ফিট পানি বিদ্যুতায়িত হয়ে ওই স্থানে থাকা জলজ প্রাণীসহ সকল মাছ মারা যায়। যাহা সম্পূর্ণ বেয়াইনী ও অপরাধের শামিল।
এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা ফারহানা আকতার রুমা জানান, ইলেকট্রিক সার্কিট দিয়ে এভাবে সরাসরি মাছ ধরার কোন অনুমতি নেই। উপজেলার ডাকাতিয়া নদীর বিভিন্ন অংশে, খালে-বিলে নির্বিচারে ইলেকট্্িরক শক দিয়ে অভিনব পদ্ধতিতে দীর্ঘিিদন ধরে মাছ নিধন করে চলছে একটি চক্র। এতে দেশীয় প্রজাতির মাছ ও মাছের পোনা নিধন হচ্ছে নির্বিচারে। ফলে দেশীয় প্রজাতির মাছ বিলুপ্তির উপক্রম হয়েছে। দেশের সম্পদ রক্ষার স্বার্থে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Share This post